বাংলাবাজারে প্রবাসীর জমি দখলে নিতে গৃহবধুর উপর হামলা ও প্রাণনাশের হুমকি

আইন ও প্রশাসন স্থানীয় বার্তা
  • 114
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    114
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদন:

কক্সবাজার সদরের বাংলাবাজারে এক নিরীহ-অসহায় প্রবসীর জমি জবর দখলে নিতে নানা পায়তারা শুরু করেছে একটি ভূমিদস্যু চক্র। পাশে দাঁড়ানোর মত কেউ না থাকায় ওই প্রবসীর স্ত্রীর উপর বার বার সন্ত্রাসী হামলা চালাচ্ছে চক্রটি। এ ঘটনায় ওই ভুক্তভোগী পরিবারটির মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।

একাধিক হামলায় ওই প্রবাসীর স্ত্রীকে ব্যাপক মারধর ও প্রহার করা হয়েছে। বর্তমানে প্রাণনাশের হুমকি নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি।

জানা গেছে, সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের বাংলাবাজার মুক্তারকুল গ্রামীণ ব্যাংক সংলগ্ন এলাকার আনোয়ারুল হকের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৩৫) পরিবারের অর্থনৈতিক চাকা সচল করতে বর্তমানে প্রবাসে রয়েছেন।

তার বাবা আনোয়ারুল হক খরুলিয়া মৌজার ২৮৪ নং বিএস খতিয়ানের পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ৬ শতক জমি সারাজীবন ভোগ দখল করে আসছিলেন। বর্তমানে ওই জমি পৈত্রিক সূত্রে প্রবাসী রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবার দীর্ঘ দেড় যুগ ভোগ দখল করে আসছেন।

তিনি প্রবাসে থাকার কারণে কিছুদিন থেকে ওই জমিটির প্রতি লোলুপ দৃষ্টি পড়ে আবদুল মঈন (৫০) নামে এক প্রতিবেশী ভুমিদস্যুর। তিনি বিভিন্নভাবে দখলের পাঁয়তারা করে আসছেন।

গত বুধবার (২৪ মার্চ) প্রবাসীর স্ত্রী আরেফা বেগম (৩০) জমিতে বাড়ি নির্মাণের কাজ করতে গেলে ভুমিদস্যু আবদুল মঈনের নেতৃত্বে তার ছেলে সিজানুর রহমানসহ ৬-৭ জনের একদল চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্র সজ্জিত হয়ে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর উপর হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালায় এবং সশস্ত্র হামলাকারীরা প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

এসময় তারা আরেফা বেগমকে
ব্যাপক মারধর করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থল থেকে কোন রকম প্রাণে বেঁচে গেলেও মারাত্মকভাবে আহত তিনি।

প্রকাশ্যে হামলা চালিয়েও ক্ষান্ত হয়নি ভূমিদস্যু চক্রটি। বর্তমানে চক্রটির প্রাণনাশের হুমকিতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় পড়েছে ওই প্রবাসীর স্ত্রী। তাদের অব্যাহত হুমকি-ধামকিতে ভয়ে স্থবির হয়ে পড়েছে আরেফা বেগম। নীরব কান্নায় বোবা হয়ে গেছে তার পুরো পরিবার।

জমির মালিক আনোয়ারুল হক বলেন, আমি পৈত্রিকসূত্রে জায়গার মালিক। আমি বর্তমাসে সে জায়গায় দখলে আছি। কিন্তু স্থানীয় কিছু ভূমি দস্যু আমার সম্পত্তিতে সমস্যা রয়েছে বলে আমার জমি দখলের পাঁয়তারা করছে। আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে। যেকোনো সময় তারা সন্ত্রাসী দিয়ে আমার জমি দখল করে নিতে পারে। আমি প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করছি।

স্থানীয় দোকানকার ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিরীহ প্রবাসীর স্ত্রীর পাশে দাঁড়ানোর মতো কেউ নেই। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মঈন ও তার ছেলে মিজান জমিটি দখলের পায়তারা চালাচ্ছে। মহিলাটির উপর বার বার হামলা করে যাচ্ছে। প্রশাসন দ্রুত হস্তক্ষেপ না করলে যেকোন সময় প্রাণহানির আশঙ্কা আছে।

ভুক্তভোগী আরেফা বলেন, আমাদের পূর্ব পুরুষের ভোগ দখলীয় ৬ শতক সম্পত্তি দখলে নিতে কিছুদিন ধরে অপচেষ্টা করে আসছে পার্শ্ববর্তী কয়েকজন ব্যক্তি। সম্প্রতি এ সম্পত্তি আমাদের নামে নামজারী করে সরকারি খাজনা পরিশোধ করলে তারা এ সম্পত্তি দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠে। গত বুধবার জোরপূর্বক ভাড়াটে সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের সম্পত্তিতে দখলে নিতে চেষ্টা চালায়। এতে বাধা দেয়ায় তারা আর কোনোদিন আমাকে জায়গায় দেখলে প্রাণ মেরে ফেলবে বলে হুমকি প্রদান করেছে।

তিনি বলেন, আমার স্বামী দেশে নেই। বড় কোন ছেলে সন্তান নেই। আমার পাশে দাঁড়ানোর মতও কেউ নেই। তাই ওরা ভয়ভীতি ও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আমাদের পূর্ব পুরুষের ভোগ দখলীয় জমিটি জবর দখল করার চেষ্টা করছে। আমাকে প্রাণে মারতে তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে। যেখানে দেখছে সেখানে হামলা চালাচ্ছে। এখন আমি চরম নিরাপত্তাহীন। আমি প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছি।