মায়ানমারে কারাভোগ করে দেশে ফিরলেন ২৪ বাংলাদেশী নাগরিক

অন্যান্য আইন ও প্রশাসন চট্টগ্রাম সীমান্ত সংকট
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    19
    Shares
শাহীন মাহমুদ রাসেল::
বিভিন্ন সময় অবৈধভাবে মিয়ানমারে প্রবেশের অভিযোগে আটক হয়ে দীর্ঘদিন করাগারে থাকা ২৪ বাংলাদেশী নাগরিককে ফেরৎ  দিয়েছে মিয়ানমার জান্তা সরকার।
মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মিয়ানমারের মংডু শহরে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বিজিবি ও বিজিপির পাতাকা বৈঠকের পর দুপুরে এসব বাংলাদেশিদের হস্তান্তর করা হয়।
পাতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে ৯ সদস্যের  প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২বিজিবি)এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল ফয়সাল হাসান খাঁন। মিয়ানমারের পক্ষে ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন ৪নং বডার্র গার্ড পুলিশ ব্রাঞ্চের কমান্ডিং অফিসার লেঃ কর্ণেল জু লিং অন।
মিয়ানমার থেকে ফিরিয়ে আনা বাংলাদেশিরা হলেন, রাঙ্গামাটির কাউখালী থানার ধুবুয়া লামারপাড়ার চাইরুই মারমার ছেলে পাইসেহ্লা, টুইকাহার ওরফে সানসুর ছেলে মং চিং মামরা, কুলার পাড়ার থৈইনু ওরফে থৈইনুর ছেলে থৈঅংরী মারমা,টেকনাফের হোয়াইক্যং উত্তর পাড়ার মোঃ গিয়াস উদ্দিনের ছেলে জুনায়েদ, হ্নীলা দমদমিয়ার করিমুল্লাহর ছেলে রহমত উল্লা, শাহপরীর দ্বীপ উত্তর পাড়ার লাল মিয়ার ছেলে এনায়েত উল্লাহ, শাহপরীর দ্বীপের আবদুর শুক্কুর (মিজি)’র ছেলে মোহাম্মদ আয়েস, উত্তর পাড়ার মৃত জালাল আহমদের ছেলে সিরাজুল্লাহ, উলুবনিয়ার আব্দুল জলিলের ছেলে রুবেল, নাইক্ষ্যং পাড়ার মোহাম্মদ শরীফের ছেলে মোহাম্মদ উল্লাহ, বড়তলীর আমানুল্লাহের ছেলে মোহাম্মদ সলিম,
বান্দরবানের কুহালংয়ের জহির আহমদের পুত্র মোহাম্মদ সাদেক, হোয়াইক্যং লম্বাবিলের মো. ইসমাঈলের ছেলে আব্দুল কাদের, একই গ্রামের জকির আহমদের ছেলে অলি আহমেদ, বান্দরবানের কুহালংয়ের ক্যচিং মং এর ছেলে চাই চাই প্রু মারমা,রাজশাহী পুটিয়া থানার মধুখালী গ্রামের দমদমিয়ার ইয়াসিনের পুত্র মোঃ সাবুর, হ্নীলা জাদিমোরার মোঃ হোসাইনের ছেলে ইমান হোসাইন, বান্দরবান কুহালংয়ের উথেইসেনের ছেলে, পুকুয়েটসে, রাঙ্গামাটি জেলার কাউখালী থানার পূর্ব সোনাইছড়ির চাইথৈয়াইউ মারমার মেয়ে মিস অঞ্জনা মারমা, উচিংনু মারমার পুত্র আগ্রা মারমা, একই থানার পশ্চিম মোনাইপাড়ার থৈসামং মারমার পুত্র কংচিংউ মারমা, দুসরী পাড়ার উশোপ্রু মারমার পুত্র সাথোয়াইমং মারমা, পাওপাড়ার মংসা মারমার ছেলে থৈয়াইপ্রু অং মারমা এবং টেকনাফ আলী পাড়ার মৃত মীর আহমেদের ছেলে নুরুল আলম।
বিষয়টি নিশ্চিত করে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২বিজিবি)এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল ফয়সাল হাসান খাঁন জানান, ২৪ জনই বিভিন্ন সময় অবৈধভাবে মিয়ানমারে প্রবেশের দায়ে আটক হয়ে সেখানে জেলে ছিল।
তিনি আরো জানান, ফেরৎ আনা ২৪ জনকে পুলিশের সহায়তায় টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সমন্বয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। কোয়ারেন্টাইন শেষে তাদেরকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *